Home » ইতিহাস-ঐতিহ্য » ভৌগলিক অবস্থান

ভৌগলিক অবস্থান

রোহিঙ্গা গ্রাম পোড়ানোর নতুন প্রমাণঃ অ্যামনেস্টির   

অনলাইন ডেস্কঃ আরাকান টিভি। বার্মায় রোহিঙ্গাদের গ্রাম পোড়ানোর স্যাটেলাইটের মাধ্যমে পাওয়া ছবি প্রকাশ করেছে মানবাধিকার সংস্থা অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল। সংস্থাটি বলছে, এতে প্রমাণ হয় বার্মা সুপরিকল্পিতভাবে এই অভিযান চালাচ্ছে। অ্যামনেস্টি বলছে, এটি প্রমাণিত যে, বার্মার নিরাপত্তাবাহিনী সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গাদের সেদেশ থেকে বিতাড়িত করার চেষ্টা করছে। অবশ্য বার্মার সেনাবাহিনী বলছে, তারা সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে। বেসামরিক নাগরিকদের অভিযানের লক্ষ্যবস্তু করার বিষয়টি তারা …

বিস্তারিত

ফিলিস্তিনি ও রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধে সোচ্চার হতে হবে : মাওলানা জাফরুল্লাহ খান

অনলাইন নিউজ: আরাকান টিভি। খেলাফত আন্দোলনের আমিরে শরিয়ত মাওলানা জাফরুল্লাহ খান বলেছেন, সোজা আঙ্গুলে ঘি উঠবে না। ফিলিস্তিন ও আরকানীদের ওপর নির্যাতন বন্ধে বাংলাদেশ সরকারকে সোচ্চার হতে হবে। এখনই সময় মানবতার পে ইতিহাস গড়ার। গতকাল বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর খেলাফত আয়োজিত ‘ফিলিস্তিন ও রোহিঙ্গাদের অধিকার বিশ্ব মানবতার অঙ্গীকার’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা …

বিস্তারিত

থাই সরকারের প্রতি বাংলাদেশ ও বার্মার শরণার্থীদের সুরক্ষা দেয়ার আহ্বান: এইস আর ডব্লিও

আনসারি: স্টাফ রিপোর্টার, আরাকান টিভি। বাংলাদেশি ও বার্মার পাচার হওয়া শরণার্থীদের জরুরি ভিত্তিতে সুরক্ষা দিতে থাইল্যান্ড সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে মানবাধিকার বিষয়ক সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ। একই সঙ্গে থাইল্যান্ডে মানব পাচারের বিরুদ্ধে সেনাবাহিনীর একজন জেনারেল সহ ৬২ জনকে শাস্তি দেয়ার ঘটনার প্রশংসা করা হয়েছে। বলা হয়েছে, মানুষ পাচারের বিরুদ্ধে থাইল্যান্ডের এটা একটি বড় পদক্ষেপ। এই বিচারের মাধ্যমে মানব পাচারের সঙ্গে …

বিস্তারিত

আরাকানের প্রধান প্রধান নদী

আরাকানে বেশ কয়েকটি উল্লেখযোগ্য নদী আছে যথা: নাফ (Naf), মায়ু (Mayu), কালাদান (Kaladan), লেমব্রু (Lembru), অনন (Ann), তানগু (Tangup) ও স্যান্ডোয়ে (Sandoway) প্রভৃতি। এর মধ্যে নাফ, কালাদান, লেমব্রু ও মায়ু আরাকানের প্রধান প্রধান নদী। নাফ নদী ছোট মনে হলেও বেশ খরস্রোতা। এটি বাংলাদেশ ও আরাকানের মধ্যকার আন্তর্জাতিক সীমারেখা হিসেবে কাজ করে। নাফ নদীর পূর্বতীরে আরাকানের মংডু টাউনশীপ এবং পশ্চিমতীরে বাংলাদেশের …

বিস্তারিত

আরাকানের ভৌগোলিক অবস্থান

বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্ব সীমান্তবর্তী একটি অঞ্চল আরাকান। এটি উত্তর অক্ষাংশের ২১°২০″ ও ১৬°২২″ এর মধ্যে এবং পূর্ভ দ্রাঘিমাংশে ৯২°২১″ ও ৯৫°২০″ এর মধ্যে অবস্থিত। এর উত্তরে চীন ও ভারত, দক্ষিণ ও পশ্চিমে বঙ্গোপসাগর, উত্তর ও পশ্চিমে বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্ভ সীমান্তবর্তী নাফ নদীর মধ্যসীমা এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম। পূর্বে মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী ইয়োমা (Yoma) পর্বতমালা। এ সুদীর্ঘ, দুর্গম, সুউচ্চ ও বিশাল ইয়োমা পর্বতমালা দুর্ভেদ্য প্রাচীরের …

বিস্তারিত

আরাকানের ভৌগলিক অবস্থান

আরাকান বর্তমানে বার্মার একটি পশ্চিমা প্রদেশ যা ১৭৮৪ সাল পর্যন্ত একটি স্বাধীন দেশ ছিল। অন্যান্য দেশের ন্যায়, আরাকানের ভৌগোলিক অবস্থার গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রয়েছে তার ইতিহাস পরিক্রমার উপর। অষ্টাদশ শতকের প্রায় শেষ পর্যন্ত সময় ধরে তৎকালীন আরাকান নিজেকে একটি স্বাধীন রাজত্ব হিসেবে বজায় রাখতে সমর্থ হয়েছিল শুধু মাত্র এর ভৌগোলিক অবস্থানের কারণেই। সামরিক শাসনামলে বার্মার এবং আরাকানের নাম পরিবর্তন করা হয়। …

বিস্তারিত