Home » Breaking News » রোহিঙ্গাদেরকে এনভিসি দেওয়া বন্ধ করে নাগরিকত্ব দিতে হবেঃ ইআরসি

রোহিঙ্গাদেরকে এনভিসি দেওয়া বন্ধ করে নাগরিকত্ব দিতে হবেঃ ইআরসি

আজিজুল হক, আরাকান টিভিঃ সোমবার ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) ৩২ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থী ক্যাম্প সফর করেছেন।

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের এই সফরের উপর এক বিবৃতি প্রদান করেন ইউরোপীয়ান রোহিঙ্গা কাউন্সিল (ইআরসি) এর মুখপাত্র ডঃ আনিতা সগ।

বিবৃতিতে আনিতা বলেন, রোহিঙ্গারা বার্মায় কেমন ভয়াবহ পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছে, বার্মা সেনাবাহিনী এবং স্থানীয় মগ সদস্যরা তাদের উপর কি পরিমান ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে তা অনুধাবনের জন্য ইউরোপীয় প্রতিনিধিদলের এটিই মোক্ষম সুযোগ।

ইউরোপীয় প্রতিনিধিদলের এই সফরটি অনন্য গুরুত্ব বহন করছে। প্রতিনিধি দলের সদস্যরা বার্মা সরকারের নিকট রোহিঙ্গা এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কিছু দাবী উত্তাপন করবে। তার মধ্যে রোহিঙ্গাদের উপর চলমান নির্যাতন বন্ধ করা, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে জাতিগত নির্মূল বন্ধ করা। এবং জাতিসংঘ সাহায্য সংস্থা, জাতিসংঘ ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন, জাতিসংঘের বিশেষ দূত ইয়াংহি লি, স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের আরাকানে অবাধ প্রবেশের সুযোগ দেয়া। যদি বার্মা এসব দাবী না মানে তাহলে ইউরোপীয় ইউনিয়নের অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে।

ইউরোপীয় প্রতিনিধিদল এমন এক সময়ে বার্মা সফরে যাচ্ছেন যে সময়ে বার্মা সফরের কথা ছিল জাতিসংঘের বিশেষ দূত ইয়াংহি লির। কিন্তু বার্মা সরকার তার এই সফরে নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে। অনুরুপভাবে চলতি মাসে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের আরাকান সফর ও অনুমোদন করেনি বার্মা সরকার।

এছাড়া প্রতিনিধিদলের এই সফরের সময়েই একটি রিপোর্ট প্রকাশ হয় যেখানে রোহিঙ্গা হত্যায় সেনাবাহিনী এবং স্থানীয় মগদের জড়িত থাকার স্পষ্ট প্রমাণ মিলেছে।

আনিতা সগ আরো বলেন, আমরা ইউরোপীয়ান পার্লামেন্টের সদস্যদের মাধ্যমে বাংলাদেশ এবং বার্মাকে জানাতে চাই যে, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন চুক্তিতে তারা আরো কিছু সংশোধনী আনুক। এই চুক্তির আওতায় প্রত্যাবাসনে রোহিঙ্গাদের মধ্যে ভীতির সৃষ্টি করছে। এবং চুক্তিতে জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থা এবং ক্যাম্পে বসবাসরতদের মধ্য থেকে রোহিঙ্গা প্রতিনিধিদের অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।

১৯৮২ সালে এক বিতর্কিত আইনের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের নাগরিকত্ব থেকে বঞ্চিত করা হয়। এ কারনে তাদের অন্যতম দাবী হচ্ছে নাগরিকত্ব। সাম্প্রতিক সময়ে বার্মা সরকার রোহিঙ্গাদেরকে জোরপূর্বক এনভিসি নিতে বাধ্য করছে। এই এনভিসি কার্ড রোহিঙ্গাদেরকে বার্মায় বাস করা অবৈধ অভিবাসী হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেয়।

আনিতা সগ ইউরোপীয়ান প্রতিনিধিদের আহ্বান করে বলেন, বার্মা সরকারকে আপনাদের অবশ্যই বলতে হবে যে তারা যেন রোহিঙ্গাদের এনভিসি দেওয়া থেকে সরে এসে ১৯৮২সালের বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন বাতিল করে রোহিঙ্গাদের নাগরিক হিসেবে স্বীকৃতি দেয়।

আরো দেখুন

রোহিঙ্গা পুনর্বাসনে ৮০০ কোটি টাকার সহায়তা দিচ্ছে এডিবি

ঢাকা, আরাকান টিভি: প্রতিবেশী দেশ বার্মা থেকে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের জন্য ৮০০ কোটি টাকার …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *